channel 24

সর্বশেষ

  • ২৪ ঘন্টায় করোনায় মারা গেছেন ৩৪ জন, আক্রান্ত ২৭৬৬

  • মানুষের অধিকার খর্ব করার আইন বাতিলের দাবি ফখরুলের

  • এএফসি কাপে প্রস্তুতি নিয়ে স্বস্তিতে বসুন্ধরা কিংস

  • রাতে অঘোষিত ফাইনালে মুখোমুখি বার্সালোনা-বায়ার্ন

  • চাকরি দেয়ার নামে টাকা নেয়ার অভিযোগ উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

  • সি আর সেভেনকে বার্সায় বিক্রির প্রস্তাব জুভেন্টাসের

  • ট্রাম্পের মধ্যস্ততায় ইসরায়েলের সঙ্গে আরব আমিরাতের ঐতিহাসিক চুক্তি

  • মহামারির ছোবলে ধুঁকছে জৌলুস হারিয়ে টিকে থাকা বিউটি বোর্ডিং

  • যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে নৃশংসতায় তত্ত্বাবধায়কসহ আটক ১০

  • ৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণহানি ২ লাখ ছাড়াতে পারে

  • কমলা হ্যারিস ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে অযোগ্য: ট্রাম্প

  • সিনহা রাশেদ হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন

  • সিরাজগঞ্জে যুবলীগ নেতা ডিজে শাকিলের প্রতারণায় নিঃস্ব অনেকে

  • নতুন মোড় নিচ্ছে সিনহা হত্যা মামলা

  • প্রথমবারের মত চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমিতে লাইপজিগ

কার্যকরী উদ্যোগের অভাবে সংকটে চামড়া খাত

কার্যকরী উদ্যোগের অভাবে সংকটে চামড়া খাত

দেনা, ঋণ ও দরদাম নিয়ে আগে থেকে সংকটের আভাস থাকলেও সমাধানের উদ্যোগ নেয়নি ট্যানারি মালিক, আড়ৎদার ও সরকার। ফলে এ বছর চামড়া খাত নিয়ে তৈরি হয়েছে নৈরাজ্য। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলেও নতুন বাজার খোঁজার ক্ষেত্রেও নেয়া হয়নি কার্যকর উদ্যোগ। ফলে বাড়তি সরবরাহ হয়ে উঠেছে গলার কাঁটা।

পশুর চামড়া নিয়ে কমবেশি ব্যস্ততা লেগেই আছে ট্যানারিগুলোতে। কিন্তু এবারের সংকট কিছুটা গতি কমিয়েছে স্বাভাবিক কাজকর্মের। এই সংকটের পেছনে ঠিক কি কারণ দায়ী সেটা নিয়ে আলোচনার ডালপালা ছড়িয়েছেন সবখানে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, এর ফলে প্রান্তিক পর্যায়ে সম্পদের মূল্য ঠেকেছে তলানীতে। ঝুঁকিতে পড়ে গেছে পুরো খাত।

বিশ্ববাজারে পরিবেশ ইস্যুতে বাংলাদেশি চামড়া নিয়ে সংকট তৈরি হয়েছে বহু আগেই। কিন্তু সেটি সমাধানে নেয়া উদ্যোগ বাস্তবায়ন হয়নি সময়মতো। ফলে সেই অজুহাতে দাম কমিয়েছেন ক্রেতারা। যার প্রতিফলন গেলো কয়েক অর্থবছরের রপ্তানি আয়ের নেতিবাচক ধারায়। ধারাবাহিকভাবে আয় কমায়, ট্যানারিগুলোতেও পড়ে আছে অবিক্রিত পণ্য। ফলে, তারাও এবার আগ্রহ কমিয়েছেন কাঁচা চামড়া কেনায়।

এই খাতের বিশ্লেষকরা এখন সংকটের দায় চাপাচ্ছেন সরকার, আড়ৎদার এবং ট্যানারি মালিকদের ওপর। কারণ আগে থেকেই আভাস পাওয়া গেলেও সমাধানের উদ্যোগ নেয়নি কোনো পক্ষই। কয়েক বছর ধরে রপ্তানি পড়ে যাওয়া ঠেকাতেও ছিল না নতুন কোনো কৌশল।

উদ্যোগ আসেনি পরিবেশের উন্নয়ন করে আন্তর্জাতিক সনদ অর্জনে প্রয়োজনীয় যোগাযোগ করার। ফলে একদিকে কাঁচা চামড়ার সরবরাহ বাড়লেও অন্যদিকে সীমিত হয়েছে চাহিদা। যা শেষমেষ গিয়ে প্রতিষ্ঠিত করেছে অর্থনীতির সরল তত্ত্বকে।

মাস তিনেক আগে লেদার ওয়ার্কিং গ্রুপ ট্যানারি পল্লীর সিইটিপি পরিদর্শন করে পরামর্শ দেয় বেশকিছু সংস্কারের। কিন্তু সেদিকেও খুব বেশি এগুতে পারেনি সরকার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর