channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রামে রোহিঙ্গাদের এনআইডি দেয়ার অভিযোগে ইসি'র ২ কর্মচারি গ্রেপ্তার

  • কারাগারে খালেদা জিয়াকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • চট্টগ্রামে চলন্ত বাস থেকে পড়ে যুবক নিহত

  • 'বিএনপি সংখ্যালঘুবান্ধব' মির্জা ফখরুলের এমন দাবি হাস্যকর: কাদের

  • ৭১-এর গণহত্যার কথা এখনও ভুলতে পারেন না আলমডাঙ্গাবাসী

  • ইউএনডিপির মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের এক ধাপ অগ্রগতি

  • মোবাইল ব্যবহার বাড়লেও কমছে আর্থিক সেবা গ্রহীতার সংখ্যা

  • গাম্বিয়াকে অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশ

  • ১ বছর পর চালু হলো যমুনা সার কারখানা

  • খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের প্রতিবেদন নিয়ে ষড়যন্ত্র চলছে: ফখরুল

  • রোহিঙ্গা গণহত্যার সাফাই গাইলেন সু চি

  • রাজধানীতে কিশোর গ্যাং-এর হামলায় আহত কিশোর মারা গেছে

  • সবুজ জলবায়ু তহবিল থেকে অনুদানের চেয়ে ঋণ দেয়া হচ্ছে বেশি

  • বাজারে পেঁয়াজের দাম কমলেও বাড়ছে চালের দাম

  • ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাইতে হবে শাজাহান খানকে: ইলিয়াস কাঞ্চন

হরমুজ প্রণালীর নিয়ন্ত্রন নিয়ে মরিয়া ইরান ও পশ্চিমা বিশ্ব

হরমুজ প্রণালীর নিয়ন্ত্রন নিয়ে মরিয়া ইরান ও পশ্চিমা বিশ্ব

সৌদি আরব, ইরান, আরব আমিরাত, কুয়েত, ইরাক থেকে তেল রপ্তানির প্রধান রুট হরমুজ প্রণালী। বিশ্বের তেল বাণিজ্যের ২০ শতাংশই হয় এ পথে। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে কাতারের গ্যাস রপ্তানিতে ব্যবহার হয় হরমুজ প্রণালী। তবে যুক্তরাষ্ট্র-ইরান দ্বন্দ্বের কারণে বন্ধে হুমকিতে রয়েছে তেল বাণিজ্যে গুরুত্ব এ রুট। হরমুজ প্রণালী নিয়ন্ত্রণে নিতে পারস্য উপসাগরে দুটি বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ পাছিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আর এর নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে মরিয়া ইরান।

হরমুজ প্রণালী বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে আলোচিত সমুদ্রপথ। এর এক প্রান্তে ইরান, অন্য প্রান্তে ওমান। মাঝখানের ৩৩ কিলোমিটার প্রশস্ত সমুদ্রপথে যুক্ত পারস্য ও আরব সাগর।

এ পথের ২ কিলোমিটার জাহাজ চলাচলের জন্য উপযোগী। ওপেকভূক্ত দেশ সৌদি আরব, ইরান, আরব আমিরাত, কুয়েত, ইরাক তেল রপ্তানি করে এ পথেই যা বিশ্বের তেল বাণিজ্যের ২০ শতাংশের মতো। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে কাতারের গ্যাস রপ্তানিও হয় এই পথে।

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার প্রতিক্রিয়ায় বরাবরই হরমুজ প্রণালি বন্ধের হুমকি দিয়ে থাকে ইরান। এতে অস্বস্তিতে পড়ে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন মিত্র দেশগুলো। কেননা পথটি বন্ধ হলে জোগান কমে বিশ্ববাজারে বেড়ে যাবে তেলের দাম। ঝুঁকিতে পড়বে বিশ্ব অর্থনীতি। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে যুক্তরাষ্ট্র-ইউরোপের বড়বড় তেল কোম্পানিগুলো।

তাই গেল জুনে হরমুজ প্রণালী বন্ধের ইরানের হুঁশিয়ারিতে নড়েচড়ে বসে যুক্তরাষ্ট্র। দুটি বিমাবাহী যুদ্ধজাহাজ পাঠায় পারস্য উপসাগরে। আঞ্চলিক মিত্রদের নিয়ে তোলে যুদ্ধ যুদ্ধ রব। যদিও ইরানের শক্ত মনোভাবের কারণে বিধ্বংসী কিছু করার সাহস করেনি যুক্তরাষ্ট্র।

শেষ পর্যন্ত হরমুজ প্রণালীতে যুদ্ধের দামামা না বাজলেও জিইয়ে থাকলো উত্তেজনা। এই জলপথ নিয়ে ইরানের সঙ্গে বিভিন্ন সময় দ্বন্দ্বে জড়িয়েছে বিভিন্ন পক্ষ। ইরাক-ইরান যুদ্ধ থেকে শুরু করে হালের ট্রাম্প জামানা! দ্বন্দ্বে জড়াতে বাকি থাকেনি কেউই।

হরমুজ প্রণালিতে দ্বন্দের ইতিহাস বিশ্লেষন করলে দেখা যায়, ১৯৯৮০-১৯৮৮ সালে ইরাক-ইরান যুদ্ধের সময় উভয় পক্ষ তেল রাপ্তানি বন্ধের চেষ্টা করেছিল। যা ট্যাংকার যুদ্ধ হিসেবেও পরিচত। ১৯৮৮ এর জুলাই মাসে যুক্তরাষ্ট্র গুলি করে ইরানের উড়োজাহাজ ধংস করে। নিহত হয় ২৯০ জন।

২০১২ সালে ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্র অর্থনৈতিক অবরোধ তুলে না নিলে হরমুজ প্রণালি বন্ধের হুমকি দেয় ইরান। ২০১৫ সালে সিঙ্গাপুরের একটি তেলবাহি ট্যাংকারকে গুলি করে ইরানের সেনাবাহিনি।

২০১৮ সালে এসে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধের জবাবে আবারো হরমুজ প্রণালি বন্ধের হুমকি দেয় ইরান। ২০১৯ এর মে মাসে সৌদি আরবের তেলবাহি ট্যাংকারসহ চারটি ট্যাংকারে হামলা হয়। ওয়াশিংটন ইরানের ওপর দোষ চাপায়। ইরান অস্বীকার করে।

২০১৯ জুন মাসে দুইটি তেলাবহি ট্যাংকারে আক্রমন করা হয়। একই মাসে উচ্চ প্রযুক্তির মার্কিন গোয়েন্দা ড্রোন ভূপাতিত করে ইরান। ২০১৯ জুলাই মাসে ইরানের ড্রোন ভূপাতিত করার দাবী করে যুক্তরাষ্ট্র। তবে ইরান তা অস্বীকার করে। তবে একটি ব্রিটিশ তেলবাহী ট্যাংকার আটক করে ইরান।

হরমুজ প্রণালিতে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে মরিয়া ইরান। যুক্তরাষ্ট্রের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই দেশটির রণতরী চষে বেড়াচ্ছে পারস্য থেকে আরব সাগর। এ হুমকি মোকাবেলায় নতুন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে ট্রাম্প নতুন কী ফন্দি আঁটে তাই এখন দেখার বিষয়।

হরমুজ প্রণালী নিয়ে নিউজটির ভিডিও প্রতিবেদন-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর