channel 24

সর্বশেষ

  • জাতীয় বীমা দিবস উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী: শেখ কবির

  • মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ গেমসের মশাল প্রজ্জ্বলন গোপালগঞ্জে

  • প্রথমবার ওয়ানডে দলে জায়গা পেয়ে রোমাঞ্চিত আফিফ-নাঈম

  • সহিংসতা কমলেও দিল্লিতে আতঙ্কে ঘরবাড়ি ছাড়ছেন মুসলমানরা

  • শনিবার দেশব্যাপী জেলা ও মহানগরে বিএনপির বিক্ষোভ

  • ফতুল্লায় আটটি অবৈধ ভবন ভেঙে দিল ভ্রাম্যমাণ আদালত

  • রাবিতে বিভাগের নাম ফলিত পরিসংখ্যান করার দাবিতে শিক্ষার্থীদের অনশন

  • দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চলমান আছে: আইজিপি

  • গাজীপুরে আনসার-ভিডিপি একাডেমিতে মৌলিক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

  • যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসন উপনির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা

  • করোনা আতঙ্কে ওমরাহ পালনে সৌদির নিষেধাজ্ঞা, টিকিট করে বিপাকে অনেকে

  • ৭ মার্চ আর্মি স্টেডিয়ামে জয় বাংলা কনসার্ট

  • উৎসবমুখর পরিবেশে চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে মনোনয়ন জমা

  • চলচ্চিত্রের প্রেমে পড়েছেন শার্লিন জামান

  • লিঁওর মাঠে অঘটনের শিকার জুভেন্টাস

৫ বছরে ব্যাংকগুলোর ঋণ বেড়েছে ৭৯ শতাংশ, আমানত ৫৮ শতাংশ

৫ বছরে ব্যাংকগুলোর ঋণ বেড়েছে ৭৯ শতাংশ, আমানত ৫৮ শতাংশ

গত ৫ বছরে দেশের ব্যাংকগুলোর আমানত ৫৮.৫৫ শতাংশ বাড়লেও এই সময় ব্যাংকগুলোর ঋণ বেড়েছে ৭৯. ১৩ শতাংশ। এ সময় কৃষিঋণ বেড়েছে ৪৭ দশমিক ২৭ শতাংশ। রোববার (২৮ জুলাই) সংসদ ভবনে অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকের কার্যপত্র থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ৮টি রাষ্ট্রায়াত্তসহ দেশের ৫৯টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের ২০১৪ সালে আমানতের পরিমাণ ছিল ৭ লাখ ১০ হাজার ৪২৩ কোটি টাকা। ২০১৯ সালের এপ্রিল পর্যন্ত এটি বেড়ে ১১ লাখ ২৬ হাজার ৩৭৩ কোটিতে দাঁড়িয়েছে। বৃদ্ধির হার ৫৮.৫৫ শতাংশ।

এছাড়া, ২০১৪ সালের ব্যাংকগুলোর ঋণের পরিমাণ ছিল যেখানে ৫ লাখ ২৮ হাজার ৭৫৫ কোটি টাকা, তা ৭৯.১৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে এপ্রিল ২০১৯ তারিখে দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৪৭ হাজার ১৭৭ কোটি টাকা।

এদিকে, এ সময় কৃষিঋণ বেড়েছে ৪৭.২৭ শতাংশ বেড়ে ১৬ হাজার ৩৬ কোটির স্থলে (জুন ২০১৯ তারিখে) ২৩ হাজার ৬১৬ কোটি হয়েছে।

বৈঠক থেকে আরও জানা যায়, জুন ২০১৯ সালে বাংলাদেশের বৈদেশিক ঋণের পরিমাণ ৩৭ হাজার ৯৪২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। গত বছর একই সময় এটি ছিল ৩৩ হাজার ৫১১ মিলিয়ন ডলার। বৈঠকে আগামী ৫ বছরে বৈদেশিক ঋণের একটি প্রক্ষেপণও জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বৈদেশিক ঋণ ২০২০ সালে ৪৪ হাজার ৫৮৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, ২০২১ সালে ৫১ হাজার ৬১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ও ২০২২ সালে ৫৮ হাজার ৯১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হতে পারে। রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, এমআরটি, মাতারবাড়ির মতো বড় বড় প্রকল্পের কারণে আগামী বছরগুলোয় বৈদেশিক ঋণ বাড়বে বলে উল্লেখ করা হয়।

অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল, মো. আব্দুস শহীদ, মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী. আহমেদ ফিরোজ কবির, রুমানা আলী ও রানা মোহাম্মদ সোহেল অংশ নেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর