channel 24

সর্বশেষ

  • আ.লীগের আমলে সংখ্যালঘুরা নিরাপদে থাকে: সেতুমন্ত্রী

  • রোহিঙ্গা ইস্যুতে দায় এড়াতে পারে না জাতিসংঘ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • বাঘাইছড়িতে ফের সেনাটহলে গুলি, পাল্টা গুলিতে সন্ত্রাসী নিহত

  • দেশের উন্নয়নে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি কাজে লাগাতে রাষ্ট্রপতির আহ্বান

  • ধর্ষণের অধিকাংশ ঘটনায় নির্যাতনকারী ক্ষমতাসীন দলের: সেলিমা রহমান

  • ডেঙ্গু জ্বরে সাতক্ষীরায় গৃহবধূর মৃত্যু

  • সাফ অনূর্ধ্ব ১৫ ফুটবল: ভূটানকে ৫-২ গোলে বিধ্বস্ত করলো বাংলাদেশ

ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে আম চাষে সাফল্য

ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে আম চাষে সাফল্য

ফরিদপুর জেলায় এ বছরই প্রথম ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে নিরাপদ ও বিষমুক্ত নাবি জাতের বারি আম ৪ চাষ করে সাফল্য পেয়েছে চাষীরা। বাজারে নিরাপদ ও বিষমুক্ত আমের ব্যাপক চাহিদা থাকায় হাঁসি চাষিদের মুখে। আম চাষ করে স্বচ্ছলতা ফিরেছে অনেক পরিবারে।

ফরিদপুরের ৯ উপজেলাতেই ব্যাপকভাবে শুরু হয়েছে বারি আম-৪ এর আবাদ। এ আমে মুকুল আসে ফাল্গুন মাসে। আর আম পাকে শ্রাবণে।

প্রতিটি আমের ওজন ৭শ থেকে ৮শ গ্রাম পর্যন্ত হয়ে থাকে। কাঁচা অবস্থায় হালকা সবুজ আর পাকলে হলুদ। রসালো আঁশবিহীন আমটি উচ্চ ফলনশীল। চলতি বছর আমের গুটি আসার পরেই ফ্রুট ব্যাগিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে। 

ফ্রুট ব্যাগিং পদ্ধতিত ব্যবহারের কারণে কোনো প্রকার কীটনামক স্প্রে করার প্রয়োজন হয়নি। ফলে এ বছর নিরাপদ ও বিষমুক্ত আম উৎপাদন হয়েছে। বাজারে নিরাপদ ও বিষমুক্ত আমের চাহিদাও প্রচুর।  

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বলছে, ১০ বছর আগে ফরিদপুর জেলায় বাণিজ্যিক আমের বাগান ছিল ৭শ হেক্টর জমিতে। গত ১০ বছরে বৃদ্ধি পেয়ে এখনও চাষ হচ্ছে ৪ হাজার হেক্টর জমিতে। 

এ জেলায় ছোট-বড় মিলিয়ে পাঁচ শতাধিক আম বাগান গড়ে উঠেছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর