channel 24

সর্বশেষ

  • অপরাধ করলে নিজের দলের লোককেও ক্ষমা নয়: ওবায়দুল কাদের

  • ক্যাসিনোর মূল হোতারা ধরা না পড়ায় অভিযান প্রশ্নবিদ্ধ: রিজভী

  • রোহিঙ্গাদের এনআইডি জালিয়াতি: চট্টগ্রাম ও কক্সবাজর অঞ্চলের...

  • ৭ ইসি কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু

  • জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি বাড়িতে...

  • কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অভিযান; বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার; আটক ৩

  • অর্থ আত্মসাৎ: পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের...

  • তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. ইউনুছ শরীফ সাময়িক বরখাস্ত

  • নওগাঁর নিয়ামতপুরে বিএনপির দুপক্ষের সংঘর্ষে ইউপি চেয়ারম্যান নিহত

  • জাতিসংঘের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী...

  • এবারের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান খোঁজা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি বাড়িতে...

  • পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অভিযান; আটক ৩

  • আন্দোলনের মুখে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে প্রত্যাহার

  • গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগ দাবিতে...

  • পঞ্চম দিনের মতো অনশনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা

খাদ্য শৃংখলে দূষণ প্রতিরোধে অভিনব পদ্ধতি ভাসমান খামার

খাদ্য শৃংখলে দূষণ প্রতিরোধে অভিনব পদ্ধতি ভাসমান খামার

দূষণের ছোঁয়া লাগছে খাদ্য শৃংখলেও। এতে খাবারের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে ব্যতিক্রম প্রকল্প বাস্তবায়ন করেন, নেদারল্যান্ডসের এক প্রকৌশলী। ৩৪ লাখ ডলার ব্যয়ে জলসীমায় স্থাপন করেন একাধিক স্তর বিশিষ্ট ভাসমান খামার। বিশুদ্ধ দুধ ও মাংস উৎপাদনে পেয়েছেন সফলতাও। ভাসমান খামার স্থাপনে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন সিঙ্গাপুর, চীন, নিউইয়র্কের উদ্যোক্তারাও।

ভূমির ওপর চাপ কমাতে জলসীমা ব্যবহার বাড়ানোর দিকে নজর উন্নত বিশ্বের। এরই মধ্যে বিভিন্ন দেশে তৈরি হয়েছে ভাসমান আবাসস্থল। চিলিতে স্থাপন করা হয়েছে ভাসমান সৌরবিদ্যুৎ প্যানেল। এর ধারাবাহিকতায় গেলো মে মাসে ৩৪ লাখ ডলার ব্যয়ে ভাসমান খামার স্থাপন করেন নেদারল্যান্ডসের এক প্রকৌশলী।

বিশ্বব্যাপী বর্ধিত দূষণের ছোঁয়া লাগছে খাদ্য শৃংখলেও। খাবারের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে খামার ব্যবস্থা পরিবর্তনের এ পরিকল্পনা করা হয়। খাদ্য শৃংখলে বড় সংস্কার আনতে সহায়তা করবে এ ভাসমান খামার।

খামার তৈরি ও নকশায় পরিবেশের সুরক্ষা ও পশু স্বাস্থ্যের ইস্যুকে গুরুত্ব দিয়েছেন এর উদ্ভাবক। সাধারণ খামারের মতোই খাবারের তালিকায় প্রাধান্য পাচ্ছে কাঁচা ঘাস। বাড়তি দুধ বা মাংস উৎপাদনে ব্যবহার করা হচ্ছে না কোনো ধরনের ওষুধ।

জরুরি মুহূর্তে চিকিৎসা সেবার সুযোগও রয়েছে এখানে। অভিনব শিল্প পরিবেশে লালন-পালন করা হচ্ছে এ খামারের পশুগুলো। অনেকেই হয়তো এ পদ্ধতির বিরোধিতা করবেন। তবে এতে উৎপাদিত মাংস ও দুধে সব খাদ্যগুণই থাকে। খামারে পৃথক স্তর থাকলেও এর কোনোটিই কংক্রিটের তৈরি নয়। রাবার দিয়ে ফ্লোর তৈরি করায় এটি গরুর জন্য বেশ আরামদায়ক। প্রতিটি গরুর জন্য আলাদা জায়গা রয়েছে। খামারের মধ্যে গরু বিচরণের জন্যও জায়গা বরাদ্দ আছে।

৪০টি গরু পালনের উপযোগী এ খামারে বর্তমানে রয়েছে ৩৫টি গরু। প্রতিদিন গড়ে সংগ্রহ করা হচ্ছে ৮শ লিটার দুধ। নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় দই তৈরিতে ব্যবহার হচ্ছে এর একাংশ। বাকি দুধ সরাসরি বিক্রি হচ্ছে স্থানীয় রেস্টুরেন্ট ও সুপারমার্কেটে। ভাসমান খামার তৈরিতে ইতোমধ্যে আগ্রহ দেখিয়েছেন সিঙ্গাপুর, চীন ও নিউইয়র্কের উদ্যোক্তারা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর