channel 24

সর্বশেষ

  • জেএফএ কাপের ফাইনাল থেকে ঠাকুরগাঁওকে বাদ দেয়ায় প্রতিবাদ সভা

  • বিজয়ী শিক্ষার্থীদের ভিসা জটিলতা, যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন সহায়করা

  • ভারতের উত্তর প্রদেশে বজ্রপাতে নিহত ৩২

  • থামছে না হংকংয়ের চীন বিরোধী বিক্ষোভ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় সংঘাতে জড়িয়ে পড়ছে গ্রামবাসী

  • য়্যুভেন্তাসকে হারিয়ে স্পার্সদের জয় ৩-২ গোলে

  • চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকাকে গলা কেটে হত্যা

  • ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ভারতীয় দল ঘোষণা

  • আর একবার যদি ফিরে পাওয়া যেতো তাকে!

  • তুরাগে পড়া ট্যাক্সিক্যাবটির এখনও সন্ধান মেলেনি

  • দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও লজ্জার হার বাংলাদেশের

  • আজ পুনরায় উৎক্ষেপণ করা হবে ভারতের চন্দ্রযান-২

  • উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের পানি কমলেও পদ্মার পানি বিপৎসীমার উপরে

  • ৯ শতাংশ ঋণের সুদে ৬ শতাংশ আমানত চান ব্যাংকাররা

  • বাড্ডায় গণপিটুনির ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

খাদ্য শৃংখলে দূষণ প্রতিরোধে অভিনব পদ্ধতি ভাসমান খামার

খাদ্য শৃংখলে দূষণ প্রতিরোধে অভিনব পদ্ধতি ভাসমান খামার

দূষণের ছোঁয়া লাগছে খাদ্য শৃংখলেও। এতে খাবারের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে ব্যতিক্রম প্রকল্প বাস্তবায়ন করেন, নেদারল্যান্ডসের এক প্রকৌশলী। ৩৪ লাখ ডলার ব্যয়ে জলসীমায় স্থাপন করেন একাধিক স্তর বিশিষ্ট ভাসমান খামার। বিশুদ্ধ দুধ ও মাংস উৎপাদনে পেয়েছেন সফলতাও। ভাসমান খামার স্থাপনে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন সিঙ্গাপুর, চীন, নিউইয়র্কের উদ্যোক্তারাও।

ভূমির ওপর চাপ কমাতে জলসীমা ব্যবহার বাড়ানোর দিকে নজর উন্নত বিশ্বের। এরই মধ্যে বিভিন্ন দেশে তৈরি হয়েছে ভাসমান আবাসস্থল। চিলিতে স্থাপন করা হয়েছে ভাসমান সৌরবিদ্যুৎ প্যানেল। এর ধারাবাহিকতায় গেলো মে মাসে ৩৪ লাখ ডলার ব্যয়ে ভাসমান খামার স্থাপন করেন নেদারল্যান্ডসের এক প্রকৌশলী।

বিশ্বব্যাপী বর্ধিত দূষণের ছোঁয়া লাগছে খাদ্য শৃংখলেও। খাবারের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে খামার ব্যবস্থা পরিবর্তনের এ পরিকল্পনা করা হয়। খাদ্য শৃংখলে বড় সংস্কার আনতে সহায়তা করবে এ ভাসমান খামার।

খামার তৈরি ও নকশায় পরিবেশের সুরক্ষা ও পশু স্বাস্থ্যের ইস্যুকে গুরুত্ব দিয়েছেন এর উদ্ভাবক। সাধারণ খামারের মতোই খাবারের তালিকায় প্রাধান্য পাচ্ছে কাঁচা ঘাস। বাড়তি দুধ বা মাংস উৎপাদনে ব্যবহার করা হচ্ছে না কোনো ধরনের ওষুধ।

জরুরি মুহূর্তে চিকিৎসা সেবার সুযোগও রয়েছে এখানে। অভিনব শিল্প পরিবেশে লালন-পালন করা হচ্ছে এ খামারের পশুগুলো। অনেকেই হয়তো এ পদ্ধতির বিরোধিতা করবেন। তবে এতে উৎপাদিত মাংস ও দুধে সব খাদ্যগুণই থাকে। খামারে পৃথক স্তর থাকলেও এর কোনোটিই কংক্রিটের তৈরি নয়। রাবার দিয়ে ফ্লোর তৈরি করায় এটি গরুর জন্য বেশ আরামদায়ক। প্রতিটি গরুর জন্য আলাদা জায়গা রয়েছে। খামারের মধ্যে গরু বিচরণের জন্যও জায়গা বরাদ্দ আছে।

৪০টি গরু পালনের উপযোগী এ খামারে বর্তমানে রয়েছে ৩৫টি গরু। প্রতিদিন গড়ে সংগ্রহ করা হচ্ছে ৮শ লিটার দুধ। নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় দই তৈরিতে ব্যবহার হচ্ছে এর একাংশ। বাকি দুধ সরাসরি বিক্রি হচ্ছে স্থানীয় রেস্টুরেন্ট ও সুপারমার্কেটে। ভাসমান খামার তৈরিতে ইতোমধ্যে আগ্রহ দেখিয়েছেন সিঙ্গাপুর, চীন ও নিউইয়র্কের উদ্যোক্তারা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর