channel 24

সর্বশেষ

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলাচল শুরু

  • এসএসসির ফলাফল এসএমএস ও অনলাইনে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই উল্লাসের রঙ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিভলবার ও গুলিসহ যুবলীগ নেতা আটক

  • চট্টগ্রামে রাস্তায় নেমেছে বাস; বাড়তি ভাড়া আদায়

  • ঝিনাইদহে পুকুর থেকে দুই ভাই বোনের মৃতদেহ উদ্ধার

  • চট্টগ্রামে চিকিৎসা না পেয়ে মারা গেলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক

  • রাষ্ট্রপতির ক্ষমায় ফাঁসি মওকুফ পাওয়া আসলাম আবারও হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার

  • ভার্চুয়াল কোর্টে ১০ কার্যদিবসে ২১ হাজার আসামির জামিন

  • করোনায় এনটিভির অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান মোস্তফা কামালের মৃত্যু

  • এসএসসিতে চট্টগ্রামে পাশের হার উর্ধ্বমুখী, পাশ করেছে ৮৪.৭৫

  • এখনই খুলছে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান: প্রধানমন্ত্রী

  • গণপরিবহনের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন

  • করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৪০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৫৪৫

  • ভাচুর্য়াল আদালত পরিচালনার প্রতিবাদে ঢাকায় আইনজীবীদের বিক্ষোভ

  • গণপরিবহন না থাকায় রাজধানীতে যাত্রী দুর্ভোগ

মেলবোর্নে খাবারের উচ্ছিষ্ঠ থেকে নবায়নযোগ্য জ্বালানি তৈরি

মেলবোর্নে খাবারের উচ্ছিষ্ঠ থেকে নবায়নযোগ্য জ্বালানি তৈরি

ঘরের আবর্জনা ও খাবারের উচ্ছিষ্ঠ থেকে নবায়নযোগ্য জ্বালানি তৈরি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে। যা সরবরাহ করা হচ্ছে প্রায় ৭৫ হাজার ঘরে। সেবার পরিধি বাড়াতে ভিক্টোরিয়াতে আরো ২০টি প্রকল্প স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান। এর বিরোধিতাও করছেন অনেকে। তবে পরিবেশবিদরা জানিয়েছেন, এটি নিরাপদ ও পরিবেশবান্ধব।

মেলবোর্নের উত্তরাঞ্চলে উচ্ছিষ্ঠ খাবারের পুনব্যবহার শুরু করেছে ইয়ার ভ্যালি ওয়াটার নামের প্রতিষ্ঠান। প্রযুক্তির সাহায্যে ঘরের আবর্জনা ও খাবারের উচ্ছিষ্ঠ থেকে তৈরি হচ্ছে নবায়নযোগ্য জ্বালানি।

পরিত্যক্ত খাবার সংগ্রহের পর সেগুলো ট্যাংকে মজুদ করা হচ্ছে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে রূপান্তর হচ্ছে গ্যাসে। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, বর্তমানে আবর্জনা মজুদের জন্য যে ট্যাংক রয়েছে তার বার্ষিক ধারণক্ষমতা ৩৩ হাজার টন। যাতে উৎপাদিত গ্যাস সরবরাহ হচ্ছে প্রায় ৭৫ হাজার ঘরে। এ সেবা সম্প্রসারণে, ভিক্টোরিয়াতে আরো ২০টি প্রকল্প চালুর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। তবে পাওয়া যায়নি পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র।

ভিক্টোরিয়াতে প্রতি বছর ২০ লাখ টনের বেশি খাবার নষ্ট হয়। নবায়নযোগ্য গ্যাস উৎপাদন প্রকল্প সম্প্রসারণ করা হলে সেগুলোর পুনব্যবহার সম্ভব। ছাড়পত্র পেলে আরো প্রকল্প চালুর পরিকল্পনা রয়েছে।

এদিকে গেলো বছরে চীনে কয়েকটি রিসাইকিলিং প্রকল্প বন্ধ হওয়ায়, অস্ট্রেলিয়াতে সমালোচনার মুখে পড়েছে, উচ্ছিষ্ঠ খাবার থেকে জ্বালানি রূপান্তরের এ প্রকল্প। একে পরিবেশের জন্য হুমকি বলে দাবি করছেন কেউ কেউ। এর পরিবর্তে জমি ভরাটে উচ্ছিষ্ঠ খাবার ব্যবহারের কথা বলছে, ভিক্টোরিয়ার কয়েকটি জেলা কাউন্সিল।

ইউরোপের দেশগুলোতে জমি ভরাটে ব্যায় কম হওয়ায় বিভিন্ন প্রকল্পে আবর্জনা ব্যবহার করা হয়। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার চিত্র ভিন্ন। এখানে জমি ভরাট ব্যায় কমাতে আবর্জনা ব্যবহার করা হয়। নতুন কোনো প্রকল্পে আবর্জনা ব্যবহার হলে জমি ভরাটে অনেক বেশি খরচ হবে।

অন্যদিকে এ প্রকল্পকে পরিবেশের জন্য শতভাগ নিরাপদ বলে দাবি করছেন পরিবেশবিদরা। এর মাধ্যমে নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাত সম্প্রসারণ হবে বলে জানান সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী।

প্রতিদিন প্রচুর খাবার নষ্ট হয়। গ্যাস উৎপাদনে সেগুলোর ব্যবহার হলে পরিবেশে ক্ষতিকর উপাদানের সংখ্যা কমে যাবে। আবর্জনাকে জ্বালানিতে রূপান্তর প্রক্রিয়াকে কখনোই মানুষকে আবর্জনা তৈরিতে উৎসাহিত করবে না। বরং এ ধরনের প্রকল্প নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতকে অনেক বেশি শক্তিশালী কবে।

এমন প্রকল্পের সংখ্যা বাড়ানো হলে গ্যাসসহ অন্যান্য জ্বালানি পণ্য সাশ্রয়ী হবে বলে জানান বাজার বিশ্লেষকরা।

দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর