channel 24

সর্বশেষ

  • অর্থের অভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত দেশের দীর্ঘদেহী মানব সুবেল হোসেন

  • 'উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করতে হবে প্রকৃতি ও প্রতিবেশকে রক্ষা করেই'

  • ডিএমপি কমিশনারকে ঘুষের প্রস্তাব দিলেন যুগ্ম কমিশনার

  • ডা. জাফরুল্লাহর কিছুটা শারীরিক অবনতি ঘটেছে

  • সুনামগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

  • খাগড়াছড়িতে অবৈধ ইটভাটা ও শতাধিক তামাক চুল্লিসহ পরিবেশ বিপর্যয়কর কর্মকাণ্ড চলছে

  • সড়কে ছবি একে করোনায় সচেতনতা বৃদ্ধি করেছ 'চেতনায় চাটমোহর'

  • বাজারে সরবরাহ কম কাঁচাপণ্যের; দাম নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

  • ঈদ যাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১'শ ৬৮ জন: যাত্রী কল্যাণ সমিতি

  • ইংলিশ লিগে বদল করা যাবে ৫ ফুটবলার

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ৩ লাখ ৯১ হাজার; আক্রান্ত ৬৬ লাখ

  • গণপরিবহ‌নে অ‌তি‌রিক্ত ভাড়া আদায় এবং বেশী যাত্রী উঠা‌নো প্র‌তিশ্রু‌তি ভ‌ঙ্গের শা‌মিল: কাদের

  • দেশে করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৮২৮

  • করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জোন ভাগ হলে কেমন হবে বাংলাদেশের চেহারা?

  • সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিমের শারীরিক অবস্থার অবনতি

বাজেট ঘাটতির দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান

বাজেট ঘাটতির দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান

গেলো এক দশকে ক্রমান্বয়ে বড় হয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় বাজেটের পরিমাণ। পাল্লা দিয়ে বাড়ে ঘাটতিও।

২০০৮-০৯ অর্থবছরে বাজেট ঘাটতি ছিলো মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ২ দশমিক ৮ শতাংশ।

এরপর ২০১১-১২ অর্থবছরে যা ৪ শতাংশ এবং ২০১৪-১৫ অর্থবছরে যা দাঁড়ায় ৪ দশমিক ৭ শতাংশে।

তবে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রায় ১ শতাংশ কমে ঘাটতি নামে ৩ দশমিক ৫ শতাংশে। যদিও পরের অর্থবছরেই আবার তা বেড়ে হয় ৪ দশমিক ৮ শতাংশ।

বাজেট ঘাটতির দিক থেকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের ওপরে রয়েছে শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান।

গত বছরে (২০১৮ সালে) শ্রীলঙ্কার বাজেট ঘাটতি হয় জিডিপির ৫ দশমিক ৩ শতাংশ। ২০০৯ সালে দেশটিতে ঘাটতি ছিলো ৯ দশমিক ৯ শতাংশ; যা গেলো ১ দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ। আর ২০১৮ সালে পাকিস্তানের বাজেট ঘাটতি হয় জিডিপির ৬ দশমিক ৬ শতাংশ। যা ২০০৯ সালে ছিলো ৬ দশমিক ৩ শতাংশ। সর্বোচ্চ ৮ দশমিক ৮ শতাংশ ঘাটতি ছিলো ২০১২ সালে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাজেট ঘাটতির তালিকায় সবচেয়ে ভালো অবস্থানে আছে ভারত। ২০১৮ সালে ঘাটতি ছিলো জিডিপির ৩ দশমিক ৪২ শতাংশ। ২০০৯ সালে ছিলো ৬ দশমিক ৪৬ শতাংশ। ২০১১ সালের পর ভারতের বাজেট ঘাটতির পরিমাণ প্রতি বছরই কমেছে।

এ তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার চেয়ে ভালো অবস্থানে আছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলো।

২০১৮ সালে সর্বোচ্চ ৩ দশমিক ৭ শতাংশ বাজেট ঘাটতি দেখা গেছে ভিয়েতনাম ও মালয়েশিয়ায়। ২০১৮ সালে ফিলিপাইনের বাজেট ঘাটতি হয় জিডিপির ৩ শতাংশ। গেলো বছরে থাইল্যান্ডের বাজেট ঘাটতি হয় ২ দশমিক ৫ শতাংশ। ২০১৮ সালে ইন্দোনেশিয়ার ঘাটতি হয় জিডিপির ১ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে বাজেটের ভিন্ন চিত্র দেখা যাচ্ছে সিঙ্গাপুরে। ঘাটতির পরিবর্তে দেখা যাচ্ছে উদ্বৃত্ত; ২০১৮ সালে সিঙ্গাপুর বাজেট উদ্বৃত্ত হয় জিডিপির শূন্য দশমিক ৪০ শতাংশ। গেলো ১০ বছরের মধ্যে ৭ বারই ছিলো উদ্বৃত্ত।

প্রতিবেদনটি দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর