channel 24

সর্বশেষ

  • 'উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করতে হবে প্রকৃতি ও প্রতিবেশকে রক্ষা করেই'

  • ডিএমপি কমিশনারকে ঘুষের প্রস্তাব দিলেন যুগ্ম কমিশনার

  • ডা. জাফরুল্লাহর কিছুটা শারীরিক অবনতি ঘটেছে

  • সুনামগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

  • খাগড়াছড়িতে অবৈধ ইটভাটা ও শতাধিক তামাক চুল্লিসহ পরিবেশ বিপর্যয়কর কর্মকাণ্ড চলছে

  • সড়কে ছবি একে করোনায় সচেতনতা বৃদ্ধি করেছ 'চেতনায় চাটমোহর'

  • বাজারে সরবরাহ কম কাঁচাপণ্যের; দাম নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

  • ঈদ যাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১'শ ৬৮ জন: যাত্রী কল্যাণ সমিতি

  • ইংলিশ লিগে বদল করা যাবে ৫ ফুটবলার

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ৩ লাখ ৯১ হাজার; আক্রান্ত ৬৬ লাখ

  • গণপরিবহ‌নে অ‌তি‌রিক্ত ভাড়া আদায় এবং বেশী যাত্রী উঠা‌নো প্র‌তিশ্রু‌তি ভ‌ঙ্গের শা‌মিল: কাদের

  • দেশে করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৮২৮

  • করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জোন ভাগ হলে কেমন হবে বাংলাদেশের চেহারা?

  • সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিমের শারীরিক অবস্থার অবনতি

  • বাজেটে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ নিয়ে প্রশ্ন?

লোকসান বেড়েছে রাষ্ট্রীয় শিল্প খাতের চার করপোরেশনে

লোকসান বেড়েছে রাষ্ট্রীয় শিল্প খাতের চার করপোরেশনে

লোকসান বেড়েছে রাষ্ট্রীয় শিল্প খাতের চার করপোরেশনে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে যা দাঁড়িয়েছে প্রায় পৌনে তিন হাজার কোটি টাকায়। এর মধ্যে খাদ্য ও চিনিকল করপোরেশন একাই লোকসান দিয়েছে হাজার কোটির মতো। ফলে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ভর্তুকি ও প্রণোদনা খাতে। বাজেটে প্রকাশিত অর্থনৈতিক সমীক্ষায় উঠে এসেছে এ সব তথ্য।

সত্তর-আশি বছরের পুরনো যন্ত্রপাতি দিয়ে আখ থেকে চিনি উৎপাদন করছে সরকারি ১৫টি কল। কখনো কাঁচামাল সঙ্কট, কখনো যন্ত্রপাতি নষ্ট কিংবা টাকা পয়সার অভাবে বন্ধ থাকায় সক্ষমতার পুরোটা ব্যবহৃত হয় না দীর্ঘদিন ধরে। ফলে কেজিপ্রতি উৎপাদন খরচ রেকর্ড ছাড়ায় প্রতি বছরই।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের করপোরেশনের অধীন কারখানাগুলো চিনি তৈরি করেছিল ৬৯ হাজার টন। যা বিক্রি করা গেছে খরচের অর্ধেক দামে। ফলে ওই সময়ে করপোরেশনের নিট লোকসান দাঁড়িয়েছে প্রায় হাজার কোটি টাকা। যা বছর ব্যবধানে বেড়েছে দেড়শ কোটির বেশি।

শিল্প খাতের আরেক করপোরেশন বিসিআইসিও চলছে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে। সার কারখানা থেকে শুরু করে কাগজকল- সবই এখন বোঝা রাষ্ট্রের জন্য। কারণ সারা বছরে মাত্র দুই হাজার কোটি টাকার পণ্য বিক্রি করতে পেরেছে কলগুলো। যা তৈরিতে খরচ হয়েছে কয়েকগুণ বেশি। ফলে সেখানেও আগের বছরের চেয়ে লোকসান সাড়ে চারশ কোটি টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে নয়শ কোটির ওপরে।

এছাড়া, সীমাহীন অব্যবস্থাপনা আর দুর্নীতিতে ডুবে থাকা পাটকল করপোরেশনেও বছর ব্যবধানে লোকসান দুইশ কোটি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭শ কোটিতে। রাষ্ট্রীয় এসব প্রতিষ্ঠানে লোকসান বাড়ায় বাজেটেও বড় হচ্ছে ভর্তুকি ও প্রণোদনার পরিমাণ। যে খাতে এবারও রাখা হয়েছে ৩৩ হাজার কোটির বেশি।

শিল্প খাতের পাঁচ করপোরেশর চারটিতেই এবার লোকসান গেছে প্রায় পৌনে তিন হাজার কোটি টাকা। বিপরীতে টানা পঞ্চম বছরের মতো এবারও লাভের ধারা ধরে রেখেছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর