channel 24

সর্বশেষ

  • ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যন্ত্রপাতি ক্রয়ে ৪১ কোটি ১৩ লাখ টাকার...

  • অনিয়মে হাইকোর্টের বিস্ময়, ৬ মাসের মধ্যে তদন্তে ব্যবস্থার নির্দেশ দুদককে

  • রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে মরদেহ উদ্ধার হওয়া...

  • মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা; ময়নাতদন্তের রিপোর্ট

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ২১ পরিবারের ১০৫ সদস্যের মতামত গ্রহণ আরআরআরসি'র

  • ঢাকা মহানগরের দখল হওয়া খাল ও দখলদারদের...

  • তালিকা চেয়ে ওয়াসা ও জেলা প্রশাসককে দুদকের চিঠি

  • চট্টগ্রামে জঙ্গি সংগঠন হামজা ব্রিগেডের ৩৩ সদস্যের বিচার শুরু...

  • বিএনপি নেত্রী শাকিলা ফারজানার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • রিফাত হত্যা: মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না: হাইকোর্টের রুল...

  • মামলার সব নথি তলব; এসপির প্রেস ব্রিফিংয়ের লিখিত ব্যাখ্যার নির্দেশ

  • ডেঙ্গুতে শরীয়তপুরে গৃহবধূ ও ফরিদপুরে শ্রমিকের মৃত্যু

  • পর্যায়ক্রমে বৈদ্যুতিক লাইন মাটির নিচ দিয়ে নেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • কাশ্মীরে চালানো আগ্রাসনের কারণে ভারতীয় হিসেবে গর্ববোধ করি না...

  • গণতন্ত্র ছাড়া এ সমস্যার সমাধান নেই: নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন

  • আলোচিত বিষয়গুলোতে ঐকমত্যে পৌঁছেছি: বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • পারস্পরিক সমঝোতায় অভিন্ন নদীর পানি বণ্টন সমস্যা সমাধানের আশা জয়শঙ্করের...

  • বাংলাদেশ, ভারত ও মিয়ানমারের স্বার্থে রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফিরে যাওয়া দরকার

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: তালিকাভুক্তদের জানানো শুরু করেছে ইউএনএইচসিআর

  • মশার নতুন ওষুধ কার্যকরী, হাইকোর্টে উত্তর সিটির প্রতিবেদন...

  • দক্ষিণে আজ থেকে ছিটানো হবে নতুন ওষুধ: হাইকোর্টকে আইনজীবী...

  • ডেঙ্গু রোধে উত্তরের পদক্ষেপে সন্তুষ্ট হাইকোর্ট, দক্ষিণের ভূমিকায় ক্ষোভ...

  • ডেঙ্গু রোধে কাদের গাফিলতি, তদন্ত হওয়া দরকার: হাইকোর্ট

  • ডেঙ্গুতে শরীয়তপুরে গৃহবধূ ও ফরিদপুরে শ্রমিকের মৃত্যু

  • আন্তর্জাতিক চক্রান্তে চামড়া শিল্পের মতো সম্ভাবনাময় খাতগুলো মুখ থুবড়ে পড়ছে: ফখরুল

  • নিরাপত্তা চাইতে ডাকসুর ভিপি নুর হাইকোর্টে

১০ শতাংশ কর দিয়ে কালো টাকা বিনিয়োগের সুযোগ

১০ শতাংশ কর দিয়ে কালো টাকা বিনিয়োগের সুযোগ

প্রায় সোয়া পাঁচ লাখ কোটি টাকার রেকর্ড বাজেট। অর্থের যোগানে সার্বিকভাবে বিভিন্ন করের ওপর নির্ভরশীল হতে হচ্ছে সরকারকে। তাই সার্বিক কর ব্যবস্থাপনায় বেশ কিছু পরিবর্তনের প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে যা থাকছে অপরিবর্তিত।

অনেক সমালোচনার পরও মাত্র ১০ শতাংশ কর দিয়ে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ থাকছে অর্থনৈতিক অঞ্চল ও হাইটেক পার্কে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে। এ সুযোগ থাকছে ফ্ল্যাট ও অ্যাপর্টমেন্ট কেনা এবং দালান নির্মাণে।

এবারও অপরিবর্তিত থাকছে ব্যক্তির করমুক্ত আয়সীমা। এটি আগের মতই আড়াই লাখ টাকা। নারীদের জন্য তিন লাখ।

করপোরেট করহারেও তেমন কোন পরিবর্তন নেই। তবে, মোবাইল ফোন কোম্পানির টার্নওভারে কর বাড়ছে। সারচার্জের ক্ষেত্রে সম্পদের সীমা বাড়ানো হয়েছে। সোয় ২ কোটি থেকে যা উন্নীত করা হয়েছে ৩ কোটিতে। 

বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে নতুন ভ্যাট আইন। ১৫ শতাংশ ভ্যাটহারের পাশাপাশি নির্দিষ্ট পণ্য ও সেবার ক্ষেত্রে ৫, ৭.৫ ও ১০ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপ করার প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে। ভ্যাট নিবন্ধন সীমা ৮০ লাখ টাকা থেকে ৩ কোটি টাকা করা হয়েছে। ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক ব্যবসায়ীদের মূসক নেটের বাইরে রাখতে টার্নওভার ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ভ্যাট অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের প্রণোদনা দিতে ও পুঁজিবাজারকে শক্তিশালী করতে ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের ডিভিডেন্ড আয়ের করমুক্ত আয়সীমা ২৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার টাকা করা হয়েছে।

বড় অংকের রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রত্যেক উপজেলায় কর অফিস স্থাপন করা হবে এবং কর অঞ্চলের সংখ্যা ৩১টি থেকে ৬৩টি তে উন্নীত করা হবে বলেও ঘোষণা করা হয় বাজেটে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর