channel 24

সর্বশেষ

  • ঈদের তৃতীয় দিনেও বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে ছিল লোকসমাগম

  • মুগদা হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের থাকার ব্যয়ের বিষয়ে জানতে চায় দুদক

  • করোনার সমাধান সহজে নাও মিলতে পারে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  • কষ্টে বেঁচে আছেন বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষ, বাড়ছে পানিবাহিত রোগ

  • সাবেক সেনা কর্মকর্তা নিহতের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বিএনপির বিবৃতি

  • কক্সবাজারে সাবেক সেনা কর্মকর্তা নিহত: তদন্ত কমিটি কাল থেকে কাজ শুরু করবে

  • নিদিষ্ট সময়ে কোরবানির পশুর বর্জ্য পরিষ্কারে খুশি নগরবাসী

  • দাম না পেয়ে রাস্তায় চামড়া ফেলে দিলেন ব্যবসায়ীরা

  • ঈদ যাত্রায় করোনার সংক্রমণ বাড়তে পারে; আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

  • চট্টগ্রামে কোরবানির পশুর চামড়া সংগ্রহ হয়েছে তিনলাখ

  • বর্জ্য অপসারণে এবার স্বস্তি মিলেছে চট্টগ্রাম মহানগরীতে

  • মেধা আর অদম্য শক্তিতে সংসারের হাল ধরলেন বিরল রোগে আক্রান্ত ফাহিমুল

  • নতুন মৌসুমে নেইমার ও মার্তিনেজকে কিনবে না বার্সেলোনা

  • ডিএনসিসির প্রতিটি এলাকা, শতভাগ বর্জ্যমুক্ত ঘোষণা

  • করোনায় দেশে আরও ৩০ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৩৫৬

১০ শতাংশ কর দিয়ে কালো টাকা বিনিয়োগের সুযোগ

১০ শতাংশ কর দিয়ে কালো টাকা বিনিয়োগের সুযোগ

প্রায় সোয়া পাঁচ লাখ কোটি টাকার রেকর্ড বাজেট। অর্থের যোগানে সার্বিকভাবে বিভিন্ন করের ওপর নির্ভরশীল হতে হচ্ছে সরকারকে। তাই সার্বিক কর ব্যবস্থাপনায় বেশ কিছু পরিবর্তনের প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে যা থাকছে অপরিবর্তিত।

অনেক সমালোচনার পরও মাত্র ১০ শতাংশ কর দিয়ে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ থাকছে অর্থনৈতিক অঞ্চল ও হাইটেক পার্কে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে। এ সুযোগ থাকছে ফ্ল্যাট ও অ্যাপর্টমেন্ট কেনা এবং দালান নির্মাণে।

এবারও অপরিবর্তিত থাকছে ব্যক্তির করমুক্ত আয়সীমা। এটি আগের মতই আড়াই লাখ টাকা। নারীদের জন্য তিন লাখ।

করপোরেট করহারেও তেমন কোন পরিবর্তন নেই। তবে, মোবাইল ফোন কোম্পানির টার্নওভারে কর বাড়ছে। সারচার্জের ক্ষেত্রে সম্পদের সীমা বাড়ানো হয়েছে। সোয় ২ কোটি থেকে যা উন্নীত করা হয়েছে ৩ কোটিতে। 

বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে নতুন ভ্যাট আইন। ১৫ শতাংশ ভ্যাটহারের পাশাপাশি নির্দিষ্ট পণ্য ও সেবার ক্ষেত্রে ৫, ৭.৫ ও ১০ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপ করার প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে। ভ্যাট নিবন্ধন সীমা ৮০ লাখ টাকা থেকে ৩ কোটি টাকা করা হয়েছে। ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক ব্যবসায়ীদের মূসক নেটের বাইরে রাখতে টার্নওভার ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ভ্যাট অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের প্রণোদনা দিতে ও পুঁজিবাজারকে শক্তিশালী করতে ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের ডিভিডেন্ড আয়ের করমুক্ত আয়সীমা ২৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০ হাজার টাকা করা হয়েছে।

বড় অংকের রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রত্যেক উপজেলায় কর অফিস স্থাপন করা হবে এবং কর অঞ্চলের সংখ্যা ৩১টি থেকে ৬৩টি তে উন্নীত করা হবে বলেও ঘোষণা করা হয় বাজেটে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর