channel 24

সর্বশেষ

  • খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলকে অবহিত করা হবে: ফখরুল

  • বকেয়া পরিশোধ না হলে চামড়া বিক্রি বন্ধ: আড়তদার সমিতি

  • ধ্বংসাত্মক রাজনীতির কারণে ভুলের চোরাবালিতে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

  • ভারতের নয়াদিল্লিতে অল ইন্ডিয়া মেডিকেল ইনস্টিটিউটের আগুন নিয়ন্ত্রণে

  • অবসর বিষয়ে মাশরাফীর সিদ্ধান্ত দুই মাস পর: বিসিবি সভাপতি

  • ক্রিকেট দলের নতুন হেড কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার রাসেল ক্রেগ ডোমিঙ্গো...

  • দায়িত্ব নেবেন ২১ আগস্ট, চুক্তি দুই বছরের: বিসিবি সভাপতি

  • গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ভর্তি ১ হাজার ৪শ' ৬০: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • ডেঙ্গুতে ঢাকা মেডিকেলে নারী ও ফরিদপুর মেডিকেলে কলেজছাত্রের মৃত্যু

  • ডেঙ্গু প্রতিরোধ: ঢাকা উত্তরের প্রতিটি ওয়ার্ডকে...

  • ১০ ভাগে ভাগ করে চিরুনি অভিযান: মেয়র আতিকুল

  • ঢাকাকে হংকং, সিঙ্গাপুর বানানোর ঘোষণা স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

  • বকেয়া পরিশোধ না করায় ট্যানারিতে আপাতত...

  • চামড়া না দেয়ার ঘোষণা পোস্তার আড়তদারদের...

  • কাল সরকারের সাথে বৈঠকের পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত...

  • চামড়া বিক্রি করা না করা তাদের নিজস্ব ব্যাপার...

  • বকেয়া পরিশোধ হবে কেস টু কেস ভিত্তিতে: ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন

  • সুপরিকল্পিতভাবে রাজনীতিকে শূন্য করার চক্রান্ত চালাচ্ছে সরকার: ফখরুল

  • কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত

যেকোনো করদাতার তথ্য জানা ও জব্দ করার ক্ষমতা চায় দুদক

যেকোনো করদাতার তথ্য জানা ও জব্দ করার ক্ষমতা চায় দুদক

দুর্নীতি দমন কমিশনের কর্মকর্তারা প্রয়োজন মনে করলে, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে যেকোনো ব্যক্তির তথ্য নিতে পারবেন। এমনকি চাইলে সেগুলো জব্দও করতে পারবেন। এমন সব সুবিধা রেখে দুদক আইনের সংশোধন প্রস্তাব করেছে সংস্থাটি। তবে, বিশ্লেষকরা এটিকে নেতিবাচক হিসেবেই দেখেছেন। তাদের মতে, এতে সৎ ও সাধারণ করদাতারা হয়রানির শিকার হতে পারেন। এমনকি কর আদায়েও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলে আশংকা রয়েছে।

সক্ষম করদাতারা আয় অনুযায়ী কর দেবেন, এটাই নিয়ম। এর ব্যত্যয় হলে কর ফাঁকির দায়ে ওই করদাতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে কর বিভাগ। সারা বিশ্বে এটাই রীতি।

করদাতার সম্পদ ও আয়ের তথ্য কর বিভাগে জমা থাকে। বলা যায়, কর বিভাগ হচ্ছে করদাতার সংবেদনশীল তথ্যের জিম্মাদার। প্রয়োজনের বাইরে ওই তথ্যের ব্যবহার বা অন্য কারও হাতে দেয়ারও সুযোগ নেই।

তবে, এবার কর বিভাগের এ এখতিয়ারে হস্তক্ষেপ পড়তে যাচ্ছে দুদকের। দুদক আইনে একটি সংশোধনী আনার প্রস্তাব করা হয়েছে।

যার ফলে দুদক কর্মকর্তারা কোনো গ্রহণযোগ্য অভিযোগ ছাড়াই যে কারও আয়কর নথি তলব করতে পারবেন। এমনকি যে কারও আয়কর সংক্রান্ত নথিপত্র জব্দও করতে পারবেন। যা আয়কর আইনের সাথে সাংর্ঘষিক। এ প্রস্তাবনা এখন ভেটিং পর্যায়ে রয়েছে।

বিশ্লেষকদের মতে, বিষয়টি বাস্তবায়ন হলে হয়রানির সম্মুখীন হতে পারেন অনেকেই। এনবিআর-দুদক সমনম্বয়ের পাশাপাশি জবাবদিহীতা, স্বচ্ছতা ও সুশাসন নিশ্চিত করার পরামর্শ তাদের।

এনবিআরের কর কর্মকর্তারা এ বিষয়ে ক্যামেরার সামনে কথা না বললেও তারা জানান, এ ধরনের আইন অনুমোদন হলে, কর আদায়ে বিরূপ প্রভাব পড়বে। করদাতারা আতংকিত হয়ে কর দেয়ায় নিরুৎসাহিতও হতে পারেন। অথচ সরকার হয়রানিমুক্ত ভাবে কর আদায় করতে চাচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর