channel 24

সর্বশেষ

  • বঙ্গমাতা গোল্ড কাপের জন্য প্রস্তুত বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম

  • মুজিব বর্ষ পালনে প্রতিটি জেলায় কমিটি গঠন করা হবে: হানিফ

  • তারেক ও জোবাইদার বিরুদ্ধে অর্থপাচারের অনুসন্ধান চলছে: খুরশীদ আলম

  • দেশের বাইরে ক্যাম্প করতে আগ্রহী বাফুফে টেকনিক্যাল ডিরেক্টর

  • আবহনীকে হারিয়ে আগামীকাল শিরোপা নির্ধারন করতে চাই রুপগঞ্জ

  • তারেক ও জোবাইদার ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ হাস্যকর: ফখরুল

  • ঘর সাজানোর অন্যতম উপাদান হতে পারে ক্যাকটাস

  • চট্টগ্রামে কাঁকড়া খেয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  • 'শিক্ষাখাতে সংকট নিরসনে চট্টগ্রামে আরও ১৫টি সরকারি প্রতিষ্ঠান প্রয়োজন'

  • বিভিন্ন বাহিনীর সক্ষমতা বাড়ায় মানব পাচার কমেছে

  • বান্দরবানে নদী পূজা অনুষ্ঠিত

  • টেকনাফে দু'গ্রুপের গোলাগুলিতে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত

  • বান্দরবানে চলছে পার্বত্য নদী রক্ষা সম্মেলন

  • সৌদিতে ২১ ও ২২ নভেম্বর জি-20 সম্মেলন

  • একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য সবাইকে ভুমিকা রাখতে হবে

ব্যবসার গতি কোন দিকে? চিন্তিত শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো

ব্যবসার গতি কোন দিকে? চিন্তিত শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো

বেক্সিট ইস্যুতে ব্যবসার গতি কোন দিকে যাবে এ নিয়ে চিন্তিত শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তাদের ব্যবসা যুক্তরাজ্য থেকে গুটিয়ে নিবে কিনা তা নিয়ে চলছে জল্পনা কল্পনা।

যুক্তরাজ্যের সান্ডারল্যান্ডে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের নিশানের অন্যতম বড় কারখানা। বেক্সিট পরিস্থিতি নিয়ে এ কারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যেমন চিন্তিত, তেমনি চিন্তার ভাজ স্থানীয়দের কপালেও।

এ স্থাপনা ঘিরে ৭ হাজার মানুষ প্রত্যক্ষ ও ২৮ হাজার মানুষ পরোক্ষভাবে জীবিকা নির্বাহ করে। যার মধ্যে ৬১ শতাংশই সান্ডারল্যান্ডের। বেক্সিট ইস্যুতে কারখানা সরিয়ে নেয়ার যে পদক্ষেপের কথা নিশান কর্তৃপক্ষ বলছে, তা নিয়ে চিন্তিত সকলে।

"আমরা বেশ চিন্তিত। সামনের দিনে কি হবে তা এখনো জানি না।"

এরই মধ্যে কারখানা সরিয়ে নিলে কি হতে পারে তা বিশ্লেষণের শেষে পর্যায়ে নিশান।

সান্ডারল্যান্ডের উৎপাদিত গাড়িগুলো ২০ শতাংশ যুক্তরাজ্যের বাজারে ৬০ শতাংশ ইউরোপ ও বাকী ২০ শতাংশ পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। আর গাড়ির সকল খুচরা যন্ত্রাংশ আসে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে।

বেক্সিটের কারণে যদি কারখানা এ এলাকা থেকে সরিয়ে নেয়া হয় তাহলে ৪১ শতাংশ স্থানীয় মানুষ তাদের চাকুরি হারাবে।

"ইলেকট্রনিক গাড়ির বাজারের কারণে এমনিতে ডিজেল ইঞ্জিনের ব্যবহার কমতে থাকায় চাকুরি হারিয়েছেন অনেকে। নতুন করে কিছু কর্মসংস্থান তৈরী হলেও বেক্সিট ইস্যুতে কারখানাগুলো সরিয়ে ফেলার নীতি বিপাকে ফেলবে আমাদের।"

এদিকে, সান্ডারল্যান্ডের এ কারখানা থেকে বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরীর ইউনিট সরে গেলে এর দামে প্রভাব পড়তে পারে।

তাই, ইউরোপের কারখানা সরানো হবে নাকি সান্ডারল্যান্ডে থাকবে তা নিয়ে কাটছেনা সংশয়।

"থেরেসা মে'র পরিকল্পনা নিয়ে সংশয় কাটছেনা। ব্যবসায়ীরা সংকিত হয়ে উঠছে। করণীয় সম্পর্কে কারো কাছে কোন সুস্পষ্ট ধারণা নেই। যদি, বেক্সিট চুক্তি না হয় তাহলে সাপ্লাই চেইনে মারাত্নক প্রভাব পড়বে।"

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর করণীয় কি তা ভাবিয়ে তুলছে চাকুরিরত সাধারণদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর