channel 24

সর্বশেষ

  • চ্যারিটেবল মামলা: হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন; শুনানি মঙ্গলবার

  • রয়্যাল রিগ্যালিয়া মিউজিয়াম পরিদর্শন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • সরকারের কাছে মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার পূরণ হয়েছে বলেই...

  • নির্বাচনে ভোটারের সংখ্যা কমেছে: রাজশাহীতে ইসি সচিব

  • অর্থনীতিতে সরকারের ১০০ দিন উদ্যমহীন...

  • বৈদেশিক ঋণের দায় শোধ সামনের চ্যালেঞ্জ: সিপিডি

  • ত্রুটিমুক্ত রেজাল্টসহ ৫ দফা দাবিতে নিউমার্কেট মোড় অবরোধ করে...

  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

  • শ্রীলঙ্কা ট্র্যাজেডি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩২১; আটক ৪০...

  • দেশটিতে পালিত হচ্ছে রাষ্ট্রীয় শোক; জরুরি অবস্থা জারি...

  • আইএসের সাথে মিলে স্থানীয় জঙ্গিগোষ্ঠী এনটিজে হামলা চালায়: মনিরুল..

  • শেখ সেলিমের নাতি জায়ানের মরদেহ আনা হবে কাল: হানিফ

  • ভারতে লোকসভা নির্বাচন: ৩য় দফায় ১১৭ আসনে ভোটগ্রহণ চলছে...

  • গুজরাটের আহমেদাবাদে ভোট দিলেন নরেন্দ্র মোদি

চীনে উন্মুক্ত হচ্ছে বিদেশি বিনিয়োগ

চীনে উন্মুক্ত হচ্ছে বিদেশি বিনিয়োগ

বিদেশি বিনিয়োগ নিষেধাজ্ঞার কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসেছে চীন। দেশটির ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসে পাস হয়েছে বিদেশি বিনিয়োগ আইন। যা কার্যকর হবে ২০২০ সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে। এতে দেশ-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে শি জিনপিং প্রশাসন।

বিভিন্ন সংস্থার আশা, এই আইনে সব দেশের বিনিয়োগকারীদের সমান সুযোগ তৈরি হবে। এরইমধ্যে বিভিন্ন প্রদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখিয়েছেন বিদেশি বিনিয়োগকারীরা।

চীনের ত্রয়োদশ ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের শেষ দিনে পাস হয় বিদেশি বিনিয়োগ আইন। এর ৬টি অধ্যায়ে রয়েছে ৪২টি নিয়ম-বিধি। যার মাধ্যমে বিনিয়োগের জন্য বিদেশিদের কাছে উন্মুক্ত হচ্ছে বেইজিং।

বাণিজ্য পরিবেশের উন্নয়নে সহায়ক হবে এই আইন। দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ীদের জন্য সমান সুযোগ তৈরি হবে চীনে। ফলে বিনিয়োগে উৎসাহী হবেন বিদেশিরাও। মুনাফা অর্জনের পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও ভূমিকা রাখবেন তারা।

শি জিনপিং প্রশাসনের বিদেশি বিনিয়োগ আইন কার্যকর হবে ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে। ইতোমধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে চীনে বৈদেশিক বিনিয়োগের এই আইন।

বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে ইতোমধ্যে কয়েকটি বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন প্রদেশে বিনিয়োগের লক্ষ্যে বিদেশিদের দারুণ সাড়াও পাওয়া যাচ্ছে। এই আইনের মাধ্যমে সম্ভাবনার নতুন দ্বার উন্মোচন হয়েছে।

বাণিজ্য সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিভিন্ন দেশের উন্নত প্রযুক্তি ও উৎপাদন প্রক্রিয়াকে, দেশের শিল্পখাতে সম্পৃক্ত করতে ভূমিকা রাখবে আইনটি। একইসঙ্গে উৎপাদন ও রপ্তানি বাড়বে। অন্যান্য দেশে বিদেশি বিনিয়োগ আইন প্রণয়ন ও সংস্কারে শি জিনপিং প্রশাসনের আইনটি অনুকরণীয় বলেও জানান বিশ্লেষকরা।

চীনের অর্থনৈতিক পরিবেশের উন্নয়নে দারুণ ভূমিকা রাখবে এই আইন। পাশাপাশি বিদেশিদের বিনিয়োগ ও সম্পদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে। দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ীদের যৌথ বিনিয়োগ এলে অর্থনীতি আরো সমৃদ্ধ হবে।

বৈধ উপায়ে বাণিজ্য সম্প্রসারণে বিনিয়োগকারীদের উৎসাহিত করবে চীন সরকারের নতুন আইন। অন্যান্য দেশও এ ধরনের আইন প্রণয়নে চীনকে অনুসরণ করতে পারে। নতুন আইন পাসের ক্ষেত্রে, যুক্তরাষ্ট্রের সাথে চলমান, বাণিজ্য আলোচনার ইস্যুকে প্রাধান্য দিয়েছে চীন।

এই আইনের প্রশংসা করেছে, আমেরিকান চেম্বার অব কমার্সসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সংস্থা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর