channel 24

সর্বশেষ

  • ঐক্যফ্রন্টের ব্যানারে নির্বাচন বানচালের চেষ্টায় একটি দল: সেতুমন্ত্রী

  • সাংবিধানিকভাবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে...

  • প্রার্থী হওয়ার সুযোগ নেই খালেদা জিয়ার: অ্যাটর্নি জেনারেল

  • খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন, বিশ্বাস বিএনপির: ফখরুল

  • পল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় নিরাপরাধ কাউকে হয়রানি করা যাবে না...

  • স্কাইপে তারেকের সংযুক্তি আচরণবিধির আওতায় পড়ে না: ইসি সচিব

  • নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ এখনও তৈরি হয়নি...

  • পুলিশ প্রশাসনের আচরণ পক্ষপাতমূলক: ড. কামাল

  • ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১ম টেস্টের দলে সাদমান ইসলাম...

  • ইনজুরি থেকে সেরে ওঠেননি তামিম ইকবাল

  • নির্বাচন সুষ্ঠু করতে ইসিকেই দায়িত্ব নিতে হবে: সুজন

  • বিএনপির ইশতেহারে থাকবে দুর্নীতিমুক্ত উন্নয়ন পরিকল্পনা: আমির খসরু

মার্কিন-চীন দ্বন্দ্ব

ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনায় মুক্ত বাণিজ্য চালু রাখতে চীনের আহ্বান

ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনায় মুক্ত বাণিজ্য চালু রাখতে চীনের আহ্বান

নতুন করে ২০ হাজার কোটি ডলারের চীনা পণ্যে বাড়তি শুল্কারোপের জবাবে ৬ হাজার কোটি ডলারের মার্কিন পণ্যে ৪ স্তরে শুল্ক বসানোর হুমকি দিয়েছে বেইজিং। তবে চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানায়, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে  মুক্ত বাণিজ্যের বিকল্প নেই। আর জনসাধারণের ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনায় রেখে মুক্ত বাণিজ্য চালু রাখতে যুক্তরাষ্ট্রকে আহ্বান জানিয়েছে বেইজিং। এদিকে চীনের সাথে আলোচনার ভিত্তিতে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়ার আশ্বাস ট্রাম্প প্রশাসনের।

আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে সবার জন্য সমান সুযোগ রাখতে মুক্ত বাণিজ্যের পক্ষে অনড় চীন। তবে ট্রাম্প প্রশাসনের বাড়তি শুল্কারোপে পাল্টা জবাবও দিচ্ছে দেশটি। চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানায়, যুক্তরাষ্ট্র ২০ হাজার কোটি ডলারের পণ্যে শুল্ক বসালে ৬ হাজার কোটি ডলারের পণ্যে শুল্ক বসাবে বেইজিং। এদিকে মার্কিন সংবাদমাধ্যম জানায়, বাণিজ্য সম্পর্ক অব্যাহত রাখতে চীনের সাথে আবারো আলোচনায় বসতে চায় প্রশাসন।

ইলিনয়িস ফার্ম ব্যুরো পরিচালক তেমারা নেলসন বলেন, 'আলোচনার টেবিলে বসে এই সমস্যার সমাধান করতে পারে প্রশাসন। নীতি নির্ধারণীর মাধ্যমে বাণিজ্য সম্প্রসারণও সম্ভব।'

ওয়াশিংটন জানায়, প্রেসিডেন্টের নির্দেশনায় নতুন শুল্কারোপের জন্য ২০ হাজার কোটি ডলারের চীনা পণ্যের তালিকা তৈরি হচ্ছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ইলেকট্রনিক কাঁচামাল।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং সুয়াং বলেন, 'বাণিজ্যে সমান সুযোগ তৈরির লক্ষ্যে আলোচনা হতে পারে। ভীতি প্রদর্শনের মাধ্যমে চাপিয়ে দেয়া একতরফা সিদ্ধান্ত মানবে না বেইজিং। যুক্তরাষ্ট্রের হুমকিতে ভীত নয় চীন। বাণিজ্যের ইতিবাচক পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।'

চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানায়, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে মুক্ত বাণিজ্যের পক্ষে বেইজিং। আর মার্কিন কৃষকরা জানান, চলমান দ্বন্দ্বে ক্ষতিগ্রস্ত হবে সয়াবিনের বাজার।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ১ হাজার ২০০ কোটি ডলারের সয়াবিন চীনে রপ্তানি হয়। ওয়াশিংটনের কূটনৈতিকদের সিদ্ধান্তে এই বাজারের ক্ষতি হবে। নতুন বাণিজ্য নীতির কারণে আমাদের ক্রেতা কমছে।

চীনা গবেষকদের দাবি, মার্কিন প্রশাসনের সংরক্ষণবাদ নীতির কারণে বৈদেশিক বাণিজ্য ভারসাম্য হারাবে পুরো বিশ্ব।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর