channel 24

সর্বশেষ

  • উন্নয়ন ধরে রাখতে অশুভ তৎপরতা রুখতে হবে: রাষ্ট্রপতি

  • ধানমন্ডিতে বৈঠকে বসেছেন ফখরুলসহ জাতীয় ঐক্যের নেতারা

  • জনগণকে নয়, বিদেশিদের আস্থায় নিতে চায় ঐক্যফ্রন্ট: সেতুমন্ত্রী...

  • নীতিহীন ঐক্যে জনগণ থাকবে না: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইনমন্ত্রী...

  • সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সরকারকে আলোচনার আহবান নজরুলের

  • ১৭৭ রোহিঙ্গাকে রাখাইনে পুনর্বাসনের দাবি মিয়ানমারের...

  • প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমারের দাবি মিথ্যা: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

  • জাতীয় ঈদগাহে আইয়ুব বাচ্চুর জানাজা; কাল চট্টগ্রামে দাফন

  • প্রতিমা বিসর্জনে আজ শেষ হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব

  • প্রস্তুতি ম্যাচ: জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে বিসিবি একাদশ...

  • স্কোর: জিম্বাবুয়ে ১৭৮ (এবাদত ৫/১৯), বিসিবি ১৮১/২ (সৌম্য ১০২*)

তাপমাত্রা ও বৃষ্টিপাতের হেরফেরে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন নীলফামারীর আলুচাষীরা

তাপমাত্রা ও বৃষ্টিপাতের হেরফেরে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন নীলফামারীর আলুচাষীরা

তাপমাত্রা ও বৃষ্টিপাতের হেরফেরে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন নীলফামারীর আলুচাষীরা। আবহাওয়ার সাথে তাল মেলাতে না পারায়, এ জেলায় গতবছর অর্জিত হয়নি আলু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা। আলুবীজ বপণে দেরী হওয়ায় তিন ফসলী জমিগুলো দুই ফসলীতে নেমে আসারও আশঙ্কা করছেন কৃষকরা। এই অবস্থার জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করছেন কৃষিবিদরা।

উত্তরের জেলাগুলোয় আগাম ও স্বাভাবিক মিলিয়ে বছরে তিনবার আলুর আবাদ হয়। অনুকূল আবহাওয়ার কারণে সরকারিভাবে আলুবীজ গবেষনা ও উৎপাদন খামারগুলোও এই অঞ্চলে অবস্থিত। কিন্তু সাম্প্রতিক বছরগুলোতে শীতকালীন ও দিন-রাতের তাপমাত্রায় ব্যবধান যেমন বেড়ে গেছে, তেমনি আকস্মিক বৃষ্টিও ভোগান্তিতে ফেলছে কৃষকদের। তারা বলছেন, জমিতে রস থাকায় আলু লাগাতে দেরি হচ্ছে।

শীত আসছে ধীরে। ফলে শীতের চাষবাসও গতি হারিয়েছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে তিন ফসলী জমিগুলো দুই ফসলীতে পরিণত হয় কি না, সেই আশঙ্কাও রয়েছে কৃষকের। তবে যারা আবহাওয়ার তোয়াক্কা না করে আলু লাগিয়েছেন, তাদের অনেকের গাছে দেখা দিয়েছে গোড়া পঁচা রোগ।

কৃষিবিদরা বলছেন, ফসলের সঙ্গে আবাহাওয়ার সম্পর্ক নিবিড়। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে উত্তরের যে মরুকরণ শুরু হয়েছে, তার প্রভাব পড়ছে আলু আবাদে। তাই এখন থেকে দিনের অতিরিক্ত আলো এড়াতে, ভোরবেলায় আলু লাগানোর পরিকল্পনা করেছেন তারা।

তবে, শুধু আলু নয়, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে নীলফামারীতে শীতকালীন শাক-সবজির উৎপাদনও কমে গেছে বলে দাবি করলেন, জেলার কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা। তারা এখন তাপ-সহনশীল বীজের আশায় দিন গুণছেন।

কৃষি বিভাগ বলছে, নীলফামারী জেলায় গত বছর আলুর আবাদ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অন্তত ১৮ হাজার মেট্রিক টন কম উৎপাদন হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

বিজনেস 24 খবর